Home » পাঁচলার অনলাইন শপিং সাইট গোডাউনে বিধ্বংসী আগুন

পাঁচলার অনলাইন শপিং সাইট গোডাউনে বিধ্বংসী আগুন

সময় কলকাতা ডেস্ক :বহুজাতিক অন লাইন শপিং সাইটের গোডাউনে আগুন।হাওড়ার পাঁচলায় পুরো ছাই লক্ষাধিক টাকার সামগ্রী।ঘটনার জেরে চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়।

হাওড়ার পাঁচলা এলাকার ধামসিয়ায় একটি গোডাউনে ভয়াবহ আগুন লাগে রবিবার রাতে। ঘটনার খবর পেয়ে দমকলের ১২ টি ইঞ্জিন এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে সোমবার ভোর রাতে। টানা ৬ ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে বলে দাবী দমকলের।এই দিন ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়ে দমকল আধিকারিক ভবানী প্রসাদ দুবে জানান প্রচুর পরিমাণে দাহ্য পদার্থ ও মালপত্রে ভরা ছিল গোডাউনটি।এই কারণেই আগুনের উপর নিয়ন্ত্রণ পেতে দমকল কর্মীদের বেগ পেতে হয়েছে প্রথম দিকে।তবে আগুনের তীব্রতা বুঝে দ্রুত দমকলের ইঞ্জিনের সংখ্যা বাড়ায় দমকল দপ্তর। ধীরে ধীরে দমকল কর্মীরা আগুনের উপর নিয়ন্ত্রণ পেলেও বড় ক্ষয়ক্ষতি এড়ানো যায় নি।

শেখ আক্তার নামে এক স্থানীয় বাসিন্দার দাবী,রবিবার রাত ৮টা নাগাদ এই গোডাউন থেকে কালো ধোঁয়া বের হতে দেখেন। তাঁর আরও দাবী – স্থানীয় মানুষ জন প্রথমে আগুন নেভাতে শুরু করেন। ইতিমধ্যে স্থানীয় থানায় ও দমকলে খবর দেওয়া হয়।প্রথমে উলুবেড়িয়া থেকে দু’টি ইঞ্জিন আসে। তারাই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। কিন্তুু দাহ্য বস্তুতে ভরা গোডাউনে আগুন ক্রমশ বাড়তে থাকে। পরে মোট ১২ টি ইঞ্জিন আসে দমকলের।স্থানীয়দের বক্তব্য,ওই গোডাউনের আগুন থেকে পাশের একটি প্লাইউড গোডাউনেও আগুন ছড়িয়ে পড়ে।আর তার জেরে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান বাড়ে।তবে এই ভায়বহ আগুনে কেউ আহত বা হত হন নি বলে দাবী দমকলের।কি কারণে আগুন লেগেছে তা এখনো জানা যায়নি বলে জানিয়েছে দমকল বিভাগ । তাঁদের অভিযোগ বহুজাতিক অন লাইন শপিং সাইটের গোডাউনে প্রচুর জিনিষ পত্রে ভরা ছিল।তবে ছিল না গোডাউনের মধ্যে কোনো অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্র। দমদকলের দাবী কোন আগুন নেভানোর ব্যবস্থা ছাড়াই দাহ্য বস্তুু গোডাউন ভরা থাকায় দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়ে বলে জানান দমকল আধিকারিক ভবানী প্রসাদ দুবে।।

About Post Author