Home » বিজেপি সাংগঠনিক জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য সহ তার অনুগামীরা ফিরলেন তৃণমূলে

বিজেপি সাংগঠনিক জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য সহ তার অনুগামীরা ফিরলেন তৃণমূলে

শেষ পর্যন্ত ঘরের ছেলে ঘরে ফিরে এল। বিজেপি ব্যারাকপুর সাংগঠনিক জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য ও তাঁর হাজারখানেক অনুগামী ফিরলেন পুরনো দল তৃণমূলে। স্বস্তিতে জেলা তৃণমূল কংগ্রেসও।বিজেপি ব্যারাকপুর সাংগঠনিক জেলায় বড়োসড়ো ভাঙ্গনে প্রমাদ গুনছে  জেলা বিজেপি নেতৃত্ব। সপ্তাহের প্রথম দিন সোমবার  খড়দহের   তৃণমূল  বিধায়ক শোভন দেব চট্টোপাধ্যায় এর উপস্থিতিতে দলীয় সভাপতি পার্থ ভৌমিক দল বদলু নবাগতদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন। এদিনের এই যোগ দান শিবিরে হাজির ছিলেন ব্যারাকপুর এর বিধায়ক রাজ চক্রবর্তী, জগদ্দলের বিধায়ক সোমনাথ শ্যাম, বিজপুরের বিধায়ক সুবোধ অধিকারী সহ ব্যারাকপুর পৌরসভার পৌর প্রশাসক উত্তম দাস, টিটাগর পৌরসভার পৌর প্রশাসক প্রশান্ত চৌধুরী প্রমুখ নেতৃত্ব।

দলের নির্দেশ মেনে রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যসহ বিজেপি থেকে আগত সকলকে দলে স্বাগত জানালেন খড়দহের বিধায়ক শোভন দেব চট্টোপাধ্যায়। দমদম ব্যারাকপুর সাংগঠনিক জেলার সভাপতি পার্থ ভৌমিক বলেন, ‘যেই ব্যক্তির অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য সেই ব্যক্তি পরবর্তীতে বিজেপিতে যোগ দেন এবং সাংসদ নির্বাচিত হন। পুনরায় অত্যাচারিত হয়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিলেন রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য সহ অন্যান্যরা।পাশাপাশি রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য অভিযোগ করেন দলের সাংগঠনিক কাজ করা যাচ্ছে না তাই তিনি বিজেপি দল ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিলেন। আগামী দিনে দলীয় নেতৃত্বের নির্দেশ মতই সাংগঠনিক কাজ করবেন তিনি।

পরিশেষে তৃণমূলে যখন রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য ও তাঁর অনুগামীরা যোগ দিচ্ছেন সেই সময় এক তৃণমূল কর্মীর কথা কানে ভেসে এল, ‘এবার বাকি আর এক ঘরের ছেলে। অন্য আর একজনের মন্তব্য তাহলে এবার বিজেপিতে থাকবে কে? সেটাই এখন লাখ টাকার প্রশ্ন।’

 

About Post Author